Bengali Sports

Latest Bangla Sports Updates

রাতের খাবার খেয়ে বিছানা থেকে উঠতে পারছে না কেউ

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন একই পরিবারের পাঁচ সদস্য। কিন্তু সকাল হলেও তাদের কারও ঘুম ভাঙেনি। তারা কেউই বিছানা থেকে উঠতে পারছেন না।

মঙ্গলবার সকালে তাদের পাঁচজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা জানায়, চেতনানাশক খাবার খাওয়ায় তাদের এই অবস্থা হয়েছে। সোমবার গভীর রাতে শহরের ভৈরব পুর উত্তরপাড়া এলাকায় লুৎফর রহমান নামের এক বাড়ির মালিকের বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাতে বাড়ির মালিক লুৎফর রহমান বাসায় ছিল না। পরিবারের সদস্যরা রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। মঙ্গলবার সকালে গৃহকর্তার স্ত্রী আইরিন বেগম বিছানা থেকে উঠতে পারছিল না।

বিষয়টি তিনি তার বাবা আইনুল হককে জানায়। খবর পেয়ে নরসিংদী থেকে তার বাবা ভৈরবে মেয়ের বাসায় ছুটে আসে। দরজায় অনেকক্ষণ ডাকাডাকি করলেও কেউ দরজা খোলেনি।

কয়েক ঘণ্টা পর নাতি আবির দরজা খুলে দিয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়ে যায়। এরপর বাসার সব রুমে গিয়ে তিনি দেখেন সবাই অজ্ঞান হয়ে পড়ে আছে। ঘরের জিনিসপত্র এলোমেলো পড়ে আছে। পরে তাদেরকে দ্রুত ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়।

তারা হলেন- বাড়ির মালিকের স্ত্রী আইরিন বেগম (২৬), ছেলে আবির (১০), মা বিলাতুন্নেছা (১১০), ভাতিজি তানজিনা (২০) ও মেয়ে অহনা (৬)।

বাড়ির মালিকের শ্বশুর আইনুল হক বলেন, দুর্বৃত্তরা রাতে গোপনে খাবারের সঙ্গে নেশাজাতীয় কিছু মেশিয়ে পরিবারের সবাইকে অজ্ঞান করে বাসার সব নিয়ে যায়। ঘটনার পর ঘরের রুমের ও গেটের চাবি পাওয়া যায়নি। দুর্বৃত্তরা রাতেই ঘরের দুই ভরি স্বর্ণ, ১ ভরি রুপা, দুটি মোবাইল, কিছু দামি কাপড় ও নগদ ১৮ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।

হাসপাতালের চিকিৎসক ফেরদৌস জানান, খাবারে ভেজালের কারণেই তারা অজ্ঞান হয়েছে। আইরিনের অবস্থা খারাপ। তাকে বাজিতপুর মেডিকেল কলেজে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। বাকিরা দু’একদিনের মধ্যেই সুস্থ হয়ে যাবে।

<>

Bengali Sports © 2018