BengaliSports

24 Hours News

ব্রেকিং নিউজঃ সকল জল্পনা কল্পনার পরে দলে সুযোগ পেলেন আশরাফুল

আশরাফুল ভক্তদের জন্য দারুণ সুখবর। অবশেষে বাংলাদেশ এ দলের হয়ে জায়গা পেলেন সাবেক এই ব্যাটসম্যান। খুলনা শেখ আবু নাসের ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগামী ১৯ থেকে ২২ সেপ্টেম্বর ৪ দিনের ম্যাচ আরও একটি সুযোগ পেয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল।

আবারও জাতীয় হয়ে মাঠে নামার স্বপ্ন একটু গাঢ় হলো মোহাম্মদ আশরাফুলের। ‘এ’ দলে জায়গা পেলেন ৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা এই ক্রিকেটার। খুলনায় শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে বিসিবির হাইপারফরম্যান্স ইউনিট-এইচপির বিপক্ষের ম্যাচে, ‘এ’ দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করবেন সাবেক এই অধিনায়ক।

জাতীয় লিগের আগে এটিকে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নেয়ার সুযোগ বলছেন তিনি। ১৯ সেপ্টস্বর শুরু হবে প্রথম শ্রেণির এই ম্যাচটি। গত মৌসুমে ঢাকা প্রিমিয়ার লীগে পাঁচ সেঞ্চুরি করে আলোড়ন সৃষ্টি করেছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। এরপর গত মাসে সব ধরনের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আবারো জাতীয় দলে খেলার স্বপ্ন দেখছেন মোহাম্মদ আশরাফুল।

৩৪ বছর বয়সেও যে ফুরিয়ে যাননি। তার প্রমাণ দিয়েছেন জাতীয় লিগের আগে দেয়া বিপ টেস্টে। ১১.৪ পয়েন্ট তুলে পেছনে ফেলেছেন ক্রিকেটের মধ্যে থাকা অনেক তরুণকেও। তবে ফিটনেস প্রমাণই শেষ কথা নয়। খেলতে হবে মাঠে। এবার সেই সুযোগটাও পেয়ে যাচ্ছেন সর্বকনিষ্ঠ টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান। ৫ বছর পর খেলবেন ‘এ’ দলে। খুলনায় শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে হাইপারফরম্যান্স ইউনিট-এইচপির বিপক্ষে দেখা যাবে তাকে।

আর তাঁর জন্য ঘরোয়া লীগগুলোতে বিশেষ পারফর্মেন্সের বিকল্প যে কিছু নেই তা ভালোভাবেই বুঝেন তিনি। বর্তমান বাংলাদেশ দলের প্রেক্ষাপটে দলে জায়গা পাওয়া অনেক বেশি কঠিন।তবে বিসিবির প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু কয়েকদিন আগে আশরাফুলকে দিয়েছিলেন আশ্বাস। বলেছিলেন, জাতীয় দলে ফিরতে হলে রানের মধ্যে থাকতে হবে। শুধু এক মৌসুম নয়, ধারাবাহিক হতে হবে তাঁকে।

আর আশরাফুল জানিয়েছেন, সে অনুযায়ী কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। গত মৌসুমে ঢাকা লীগে দুর্দান্ত খেলেছেন তিনি। টানা তিনটি শতক সহ মোট পাঁচটি শতক করেছিলেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। যা বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের এক লীগে প্রথম।

অবশ্যই এটা শুধু নান্নু ভাই না। এটা আমিও জানি। আমাকে বাংলাদেশ দলে খেলতে হলে এক্সট্রাঅর্ডিনারি পারফর্মেন্স দিতে হবে। যেটা আমি ঢাকা লীগে গত বছর করেছিলাম। বাংলাদেশের ইতিহাসে এক লীগে পাঁচ সেঞ্চুরি, টানা তিনটি সেঞ্চুরি।

‘অবশ্যই আমাকে বাংলাদেশ দলে খেলতে হলে এমন কিছুই করতে হবে। আমি ২০০৬ সালে জিম্বাবুয়ের সাথে বাদ পড়ার পর ২৬৩ রানের ইনিংস খেলে দলে ফিরেছিলাম। আমি সবসময় বিশ্বাস রেখেছি, আমি বাংলাদেশের হয়ে খেললে আলাদা কিছু করব, তারপর হয়তো বা আমি আলোচনায় আসব।’

bengalisports.com © 2018